বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

হঠাৎ তরমুজের দর পতন তবুও ক্রেতার ক্রয় ক্ষমতার বাইরে

কাওসার উদ্দিন
কাফরুল থানা প্রতিনিধি

তরমুজের মূল্য প্রতি কেজি৬০ থেকে ৭০ টাকা বিক্রি হচ্ছিল। তাপ দাহের কারণে মানুষ যখন অতিষ্ঠ ছিল কোন কোন ক্ষেত্রে তার চেয়েও বেশি দামে বিক্রি হচ্ছিল। হঠাৎ পরপর তিন দিন বৃষ্টি হওয়াতে কেজি দর বাদ দিয়ে আস্ত তরমুজ হ্যাচকা দামে বিক্রি হচ্ছে। সরকার বিগত দিনে একবার ঘোষণা দিয়েছিল কেজিতে বিক্রি করা চলবে না। এই ঘোষণা কর্ণপাত না করেই কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। কেজি দরে যে তরমুজ ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা ছিল, সেই তরমুজ এখন অর্ধেক দাম অর্থাৎ আড়াইশো থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবুও মানুষ তরমুজ খেতে পারছে না। এই দামে তরমুজ ক্রয়ের সামর্থ্য জনগণের এখনো অর্জন হয় নাই। সরকারের প্রতি অনুরোধ করছি তরমুজের দামের একটা সুরাহা হওয়া উচিত। তরমুজ সহ প্রতিটি কৃষি পণ্য উৎপাদন যারা করে তারা ন্যায্য মূল্য পায়না। জিজ্ঞাসাবাদে ভুক্তভোগীর নিকট জানা যায় তরমুজ মাঠে বিক্রি হচ্ছে প্রতিটি ৬০থেকে ৭০ টাকা। কৃষকের ন্যায্য মূল্য বিবেচনা করে ভোক্তা অধিদপ্তর এবং কৃষি বিভাগ সবার সঙ্গে আলোচনা করে একটি উদ্যোগ নেয়ার জন্য জনগণের  দাবি

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন