বুধবার, ২২ মে ২০২৪

সিগারেট চেয়ে খেতো সে আজ ব্যাংকের মালিক

যে লোক মানুষের কাছে থেকে সিগারেট চেয়ে চেয়ে খেতো সে আজ শিল্পপতি। শিল্প প্রতিমন্ত্রী বলেন অনেককে দেখেছি বাজার করতে গিয়ে কাঁদছেন। কারণ বাজারের যে অবস্থা তার পকেটে সে পরিমাণে টাকা নেই।

অর্থনীতি ও বাজার দুই জায়গায় সিন্ডিকেটের হাতে বন্দী সিন্ডিকেট ভাঙ্গার আহ্বান জানিয়েছেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী জনাব কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি।

তিনি বলেন বাংলাদেশের অর্থনীতিতে যেভাবে সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে এই সিন্ডিকেট যদি আমরা ভাঙতে না পারি তাহলে দেশের ১৭ কোটি মানুষের দুঃখ ও কষ্ট যদি লাঘব করতে না পারি তাহলে আমার মনে হয় আমাদের মত লোকের মন্ত্রী থাকা উচিত নয়।

বৃহস্পতিবার ১১ই মে কোভিডের পরবর্তী পরিস্থিতিতে এস এম আই খাতের উন্নয়নের গণমাধ্যমের ভূমিকা শীর্ষক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তিনি।

আরো বলেন সেদিন যারা পরের ব্রিফকেস হাতে নিয়ে ঘুরতো অনেকের কাছে টাকা ছিল না অন্যের কাছ থেকে সিগারেট চেয়ে খেতো তারা আজ ব্যাংকের মালিক এবং সরকারি ব্যাংক থেকে টাকা নিয়ে বেসরকারি ব্যাংকের মালিক হয়েছেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের উচিত তাদের নাম প্রকাশ করা। কিন্তু তারপরেও দেশে আজকে যে অরাজকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টি হয়েছে , ব্যবসার নামে মানুষের পকেট কাটা হচ্ছে।

তিনি সাংবাদিকদের জুরালো ভাবে বলেন আপনারা আরো জোরালো ভাবে বিষয়টি তুলে ধরুন।

আমরা যখন বাজারে যাই তখন দেখি বাজারে উর্দগতি কেন এই উর্দগতি আমাদের কোন কিছুর অভাব নেই আমরা প্রতিটা ক্ষেত্রে স্বয়ং সম্পন্ন তারপরেও সিন্ডিকেটের কারণে দেশের এই অবস্থা প্রতি মন্ত্রী বলেন।

অবাক লাগে বাংলাদেশের মত একটি উন্নয়নশীল দেশ লাখো লাখ লাখো বেকার ও ক্ষুদ্র মাঝারি উদ্যোক্তাদের ঋণ মওকুফ করা হয় না আর যারা ব্যাংক থেকে কোটি কোটি টাকা নিয়ে খেলাফি হয়েছে তারাই বারবার ঋণ মওকুফ পেয়ে আবারো ঋণ নিচ্ছে।

তিনি আরো বলেন সুগার মিলের যারা আখ চাষী ছিল তারাই সুগার মিলের শ্রমিক। যার কারনে একের পর এক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে সুগার মিলগুলো যদি মিল গুলো চলত তাহলে বাজারে চিনির দাম এত বেশি হতো না। আমাদের এস এম ই খাতে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের যারা মুড়ি চানাচুর বিক্রি করতো। সেখানেও বড় বড় ব্যবসায়ীরা হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন