মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

শুক্রবার ১১ জেলায় আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় মিথিলা

বাতাসের গতিবেগ হতে পারে ৬৪ কিলোমিটার থেকে 88 কিলোমিটার বঙ্গোপসাগরের সৃষ্ট নিম্নচাপরিরাত্র বারোটা থেকে এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেবে। ঘূর্ণিঝড়টির নাম দেওয়া হয়েছে মিথিলা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সচিবালায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্মেলনে এসব বার্তা জানান প্রতিমন্ত্রী ডাক্তার মোঃ এনামুল রহমান। তিনি জানান ঘূর্ণিঝড়টি শুক্রবার দুপুর বারোটার মধ্যে উপকূলে আঘাত আনতে পারে ১১ টিউপকূল অঞ্চলে ১১ টি জেলায় আঘাত আনার আশঙ্কা রয়েছে। প্রতিমন্ত্রী বলেন বঙ্গোপসাগরের দক্ষিণ পশ্চিমে যে লঘুচাপ সৃষ্টি হয়েছিল মঙ্গলবার সেটি গতকাল নিম্নচাপরি সৃষ্টি হয়েছিল মঙ্গলবার সেটা গতকাল গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। সেটা আজ রাত বারোটার দিকে ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হয় ১১টি জেলায় আঘাত আনার সম্ভাবনা রয়েছে। জেলাগুলো হলো বাগেরহাট খুলনা পিরোজপুর ভোলা বরগুনা লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী ফেনী ও চট্টগ্রাম। তিনি বলেন নিম্ন ঘূর্ণিঝড় টিরূপান্তরিত হলে বাতাসের গতিবেগ থাকবে ৬৪ কিলোমিটার থেকে 88 কিলোমিটার এখন মংলা বন্দর হতে ৪০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে। এর এগিয়ে আসার বিশ্লেষণ করে বলা হয়েছে দুপুর বারোটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টারমধ্যে উপকূল অঞ্চলে আঘাত হানবে।

 

আবহাওয়া দপ্তর থেকে বিপদ সংকেত দেওয়া হবে। ঘূর্ণিঝড়টি সাত মাথায় উঠলেই যেন দ্রুত ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হবে মাঠ প্রশাসনকে নির্দেশ দেবে তারা যেন আশ্রয় কেন্দ্রগুলো নিরাপদ পানি ব্যবস্থা নিরাপদ খাবার রাখতে নির্দেশ দেওয়ার কথা জানান প্রতিমন্ত্রী। এদিকে গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে বৃহস্পতিবার বিকাল তিনটা থেকে পরবর্তী ৪৮ ঘন্টা ঢাকা খুলনা বরিশাল চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে অতি ভারী ৮৯ মিমি বা তার বেশি বর্ষণ হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন