মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

শিবগঞ্জে বিধবা নারীর জমি জবর দখলের চেষ্টা 

রাব্বী হাসান সুমন, শিবগঞ্জ (বগুড়া) ষ্টাফ রিপোর্টার

 

 

বগুড়ার শিবগঞ্জে কবলাকৃত জমি জবর দখলের চেষ্টা, থানায় অভিযোগ করায় বাদীর বাড়ীতে আগুন দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে৷ অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শিবগঞ্জ সদর ইউনিয়নের গুজিয়া তেলিপাড়া গ্রামের মৃত সোবহান আলীর স্ত্রী মনোয়ারা বেগম এর শ্বশুর গত ২৩/৯/১৪ইং তারিখে বিভিন্ন দাগে ৮০ শতক জমি তার ছেলে ময়নুল হাসানকে কবলা হিসেবে বিক্রি করে দেন। পরে ২০১৬ সালে ছেলে মনোয়ার শিবগঞ্জ মৌজা- তেলিপাড়া, জে এল নং- ৬২, দাগ নং-২৫৮, পরিমান-২১ শতক ধানী জমি মায়ের কাছে বিক্রি করেন। এরপর দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সাথে উক্ত জমি ভোগ দখল করে মনোয়ারা বেগম। সাম্প্রতিক উক্ত জমি একই গ্রামের প্রতিবেশী ১। মোঃ আলমগীর হোসেন (৫২), পিতা-মৃত আয়েজ উদ্দিন, ২। মোঃ জয় সামাদ (৬০), পিতা-মৃত রিয়াজ উদ্দিন, ৩। মোঃ সায়েল গামান (৫৫), পিতা। মৃত কতিচা উদ্দিন ৪। মোঃ আমির হোসেন (৫৩), পিতা-মৃত রিয়াজ উদ্দিন, ৫। মোঃ আব্দুল্লাহ আল নোমান (২২), পিতা-মোঃ আলমগীর হোসেন, জোর পূর্বক ভাবে দখল করার জন্য বিভিন্ন পায়তারা করে। শুধু তাই নয় তারা গত ১বছর যাবত মনোয়ারা ও তার ছেলের নিকট বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ভাবে ৫.০০,০০০/-(পাঁচ লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবী করিয়া আসিতেছে। তাহাদের দাবীকৃত চাঁদার টাকা না দিলে উক্ত সম্পত্তি জোর পূর্বক ভাবে দখল করার হুমকি দেন। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৮/০৩/২৪ তারিখ দিবারাত অনুমানিক ৩টার দিকে উক্ত ব্যক্তিরা পূর্বপরিকল্পিত ভাবে মনোয়ারার জমিতে রাখা ইট, সিমেন্ট, জোর পূর্বক তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে রাত ৪টার সময় বিবাদীগণ উক্ত সম্পত্তিতে জোরপূর্বক ঘর নির্মাণ ও বাঁশদ্বারা ঘিরিয়ে দখল করতে থাকে। এসময় মনোয়ারা বেগম সেহেরী খেয়ে জানতে পারেন তার জমি দখল করে কোন কিছু নির্মাণ করছে। এরপর আনোয়ারা বেগম তার ছেলে ময়নুল আসান সহ ওই জমিতে গিয়ে প্রতিপক্ষদের ঘর নির্মাণ কাজে বাধা নিষেধ প্রদান করেন। এসময় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে মনোয়ারা ও তার পুত্রকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে তাদের মারপিটের চেষ্টা করলে তারা প্রাণের ভয়ে সেখান থেকে চলে যান। এবিষয়ে শিবগঞ্জ থানায় মনোয়ারা বেগম একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

গতকাল সোমবার দিবাগত রাতে মনোয়ারার বাড়ীর পশ্চিমপাশে বাশের বেড়া ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। এতে তাদের আত্মচিৎকারে এলাকাবাসী দ্রুত এগিয়ে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেন। পরে সরকারি জরুরী সেবা ৯৯৯ নাম্বারে কল করলে শিবগঞ্জ থানার এসআই বেল্লাল হোসেন ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন। মনোয়ারা বেগমের ধারনা থানায় অভিযোগ করায় প্রতিপক্ষরা তাদের ঘরে পরিকল্পিত ভাবে আগুন দিয়েছে৷ এঘটনায় তারা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন৷

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন