মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

লক্ষ্মীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে হত্যার হুমকি পরে সড়ক দূর্ঘর্টনায় আহত অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হোক,

জয়নাল আবেদীন সজীব জেলা প্রতিনিধি,

লক্ষ্মীপুরে চন্দ্রগঞ্জ থানা সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা এম এ সামাদ পরিকল্পিতভাবে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হন।(২১_মে) লক্ষ্মীপুর – জকসিন সড়কের পুলিশ লাইন্স এলাকায় তিনি মোটরসাইকেল যাওয়ার সময় সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হন।

এম এ সামাদ বলেন, আমি দীর্ঘদিন বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সৈনিক হিসেবে ঢাকা মহানগর রাজ ছাত্র রাজনীতি দায়িত্ব পালন করেছিলাম। লক্ষ্মীপুরে জামাত-বিএমপি ধংস করার জন্য লক্ষীপুরের রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েছিলাম।সেই জামাত-বিএনপির ঐক্যবদ্ধ হয়ে কে বা কারা আমাকে ফোন দিয়ে হত্যার হুমকি দেয়।

আমার মোবাইলে ফোন রিসিভ করার সাথে সাথে বলে আমাকে কমিটিতে না রাখলে মান্দারী বাজার থাক দুরের কথা সাপ মারি ফেলার হুমকি দিয়ে থাকে আমি এর তীব্র নিন্দা জানিয়ে ওই অপরাধীদেরকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।ছাত্র জীবন থেকে শুরু করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সৈনিক হিসেবে ঢাকা মহানগরের রাজনীতি করে আসছে।হুমকি দূরের কথা, কথা বলার সাহস পাই নাই এরা কারা এদেরকে যেন দলের পক্ষ থেকে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা দেওয়া হয়।
আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে দীর্ঘদিন থেকে জড়িত। আমাকে রাজনৈতিক প্রতিযোগীতায় হারাতে না পেরে সড়ক দুর্ঘটনায় মেরে ফেলার চক্রান্ত করে একটি কুচক্র মহল, তারাই পরিকল্পিত ভাবে হত্যার চেষ্টা করে।

কিছুক্ষণ পরে লক্ষীপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হলে একটি মোটরসাইকেল সাথে সংঘর্ষ হয় আমি গুরুতর অবস্থায় ঘটনাস্থলে আহত হই।তারপরে নেতাকর্মীরা আমাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় উন্নত চিকিৎসার জন্য নোভা ট্রমা সেন্টারে প্রেরণ করা হয়।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ থানার স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ সামাদের উপর, ইউনিয়ন কমিটি নিয়ে,মোবাইল হুমকি ও পরে মোটরসাইকেল এক্সিডেন্টের নাটক সাজিয়ে হ *ত্যার ষড়যন্ত্র,করা, হয়েছে বলে অভিযোগ…।।তীব্র নিন্দা জানিয়ে ওই অপরাধীদেরকে চিহ্নিত করে দলের থেকে বহিষ্কার করা হোক আর যেন কোন নেতা এভাবে আহত না হয় জেলা আওয়ামী লীগের কাছে এটাই অনুরোধ থাকবে। যারা জামাত-বিএনপি থেকে এসে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছিলেন আওয়ামী লীগ পরিবার ধ্বংস করার জন্য আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সৈনিক হিসেবে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে একটি অনুরোধ থাকবে যারা জামাত বিএনপি থেকে এসেছে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছে তারাই আওয়ামী লীগের কমিটির না পাওয়ার বিষয় পরিকল্পিতভাবে আওয়ামী লীগ পরিবারকে ধ্বংস করে যাবে আমার মত কেউ যেন হুমকির মুখে না পড়ে।

এই সময় চন্দ্রগঞ্জ থানা অফিসের ইনচার্জের সাথে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা হত্যার হুমকি পরে আহত হওয়ার বিষয় কথা বলার সময় তিনি বলেন এখনো অভিযোগ আসে নাই অভিযোগ আসলে সুস্থ তদন্তর ভিত্তিতে অপরাধীদেরকে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন