রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

ময়মনসিংহের কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ এর বদলী জনিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে

বিশ্বনাথ সাহা বিশু বিশেষ প্রতিনিধি

 

রবিবার রাতে কোতোয়ালী মডেল থানা হলরুমে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।
কোতোয়ালী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ১নং ফাড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক ওয়াজেদ আলী, ২নং ফাড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মাহবুবুর রহমান, কোতোয়ালী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক অপারেশন মারফত আলী, পুলিশ পরিদর্শক ইন্টেলিজেন্স রাজন পাল, এসআই আনোয়ার হোসেন, এসআই দেবাশীষ সাহা, সাংবাদিক মোঃ আব্দুল হাফিজ, কামরুল হাসান বক্তব্য রাখেন।
বিদায়ী ওসি শাহ কামাল আকন্দ মিডিয়ার কাছে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করে বলেন, করোনাকালের মানবিক কাজে সাংবাদিকগণ ঝুঁকি নিয়ে দিনরাত সহায়তা করেছেন।
অফিসার ফোর্সদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, কোতোয়ালীতে সেবা গ্রহিতারা এসে যাতে অসন্তোষ না হয়, জিডি ও মামলায় কেউ যাতে হয়রানী না হয় এবং দ্রুত ঘটনাস্থলে যায় সকলকে সেই নির্দেশ দিয়েছি। সবাই আমার নির্দেশ যত কষ্টই হোক মেনে চলেছেন। কারো বিরুদ্ধে কোথাও অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তিনি আরো বলেন, ময়মনসিংহ বিভাগীয় ও শিক্ষা নগরী। প্রায় দুই লক্ষাধিক শিক্ষার্থী সহ সকল মানুষকে অল্প সংখ্যক অফিসার ফোর্স দিয়ে নিরাপত্তা প্রদান করা সম্ভব হয়েছে। এটা সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র সকলের আন্তরিকতার জন্য। তিনি সবশেষে বলেন, নগরীর আইন শৃংখলা যে অবস্থায় আছে এটা ধরে রাখবেন। কোথাও কোন অঘটন ঘটলে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছার চেষ্টা করবেন। রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ, রাতভর রেললাইন প্রহরা দেয়ার মত দিবারাত্রি কাজ করছেন সহকর্মীরা। বিশেষ কোন সুবিধা দিতে পারলেও সহকর্মীরা ভালবাসার টানে আন্তরিকভাবে এ সব করেছেন। সামনে নির্বাচন, বর্তমান পরিস্থিতিতে আগে নিজেদের সিকিউরিটি নিবেন। ইনচার্জ যে নির্দেশ দিবেন সেভাবেই চলবেন।

 

অফিসার ফোর্স গন বিদায়ী ওসি সম্পর্কে বলেন, কোতোয়ালী মডেল থানার ইতিহাসের পাতায় ওসি শাহ কামাল আকন্দের নাম লেখা থাকবে। অফিসার ফোর্সগন মায়ের কোলে সন্তানের মত নিরাপদ ছিল। তিনি একজন ভাল অভিভাবক, ভাল ম্যানেজার, ভাল অধিনায়ক। তার মাঝে সব গুনাবলী রয়েছে। কাকে দিয়ে কোন কাজটি করানো সম্ভব তা তিনি জানেন। তার কাছ থেকে অনেক শিখার রয়েছে।
অফিসার ইনচার্জ হিসেবে শাহ কামাল আকন্দ এর অর্জন, যা দিয়েছেন তা পরবর্তীতে কেউ পারবে কি না সন্দেহ। বিভিন্ন মামলার সটিক তদন্ত, গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটনে কঠিন মুহূর্তে ধৈর্য ধরে সফল হয়েছেন।
এর আগে গাড়িগুলো পৃথকভাবে বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন