রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

মোরেলগঞ্জে খাবারে চেতনানাশক, গৃহবধুর বুদ্ধিমত্তায় চোরের মিশন ব্যার্থ

বাগেরহাটে গৃহবধুর বুদ্ধিমত্তায় রক্ষা পেল টাকা, স্বর্নালঙ্কারসহ মূল্যবান মালামাল
চেতনানাশকযুক্ত খাবার খেয়ে পরিবারের শিশুসহ ৪ জন অজ্ঞান হয়ে পড়লে নিজ বুদ্ধিমত্তায় তিনি আর খাবার না খেয়ে অজ্ঞান হওয়া সদস্যদের চিকিৎসাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করেন জোসনা বেগম নামে এক গৃহবধু।ঘটনা মোরেলগঞ্জ উপজেলার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের নিশানবাড়িয়া গ্রামের রাজমিস্ত্রী মনির শেখের বাড়িতে। রবিবার দিবাগত রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে থানা পুলিশ স্থানীয়দের সহযোগিতায় অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে থাকা ৪ জনকে উদ্ধার করে রাত ১২টার দিকে মোরেলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মনির শেখের স্ত্রী জোসনা বেগম জানান, রাত ৮টার দিকে ভাত খাওয়ার সাথে সাথেই তার স্বামী, দুই সন্তান ও বেড়াতে আসা বেয়াই ঘরের বিভিন্ন স্থানে জ্ঞান হারিয়ে পড়ে যান। অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা ঘরের সকলকে অজ্ঞান করে মালামাল চুরির উদ্দেশ্যে খাবারের সাথ চেতনানাশক পদার্থ মিলিয়ে রেখেছে বলে সন্দেহ করেন জোসনা বেগম। এ অবস্থায় সে নিজে আর খাবার না খেয়ে অজ্ঞান হওয়া সদস্যদের চিকিৎসাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করেন।রাতের খাবার খেয়ে ঘরের মধ্যে বিক্ষিপ্ত অবস্থায় জ্ঞান হারিয়ে পড়ে থাকা ব্যক্তিরা হচ্ছেন, রাজমিস্ত্রী মনির শেখ (৪৫), তার মেয়ে সেতু আক্তার(১৫), ছেলে জিহাদুল ইসলাম(৫) ও বেয়াই মো. জয়নাল আবেদীন(৭২)।

এ বিষয়ে থানার ওসি মো. সাইদুর রহমান বলেন, খবর পাওয়া মাত্র পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে অসুস্থদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ওই বাড়ি থেকে কিছু চুরি হয়নি। পুলিশ ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন