রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

মূল হোতা মামুনের দোষ স্বীকার জাবিতে গৃহবধূ ধর্ষণের

মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন স্টাফ রিপোর্টার

 

 

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় মীর মোশারফ হোসেন হলে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে সঙ্গবদ্ধভাবে ধর্ষণ মামলার গ্রেপ্তার মূল হোতা মোঃ মামুনুর রশিদ ওরফে মামুন বয়স ৪৪ ও তার অন্যতম সহায়তা কারি মোহম্মদ মুরাদ হোসেন তো স্বীকার করে জবানবন্দী দিয়েছে

শুক্রবার ৯ ফেব্রুয়ারি তাদের আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর তারা ধর্ষণের ঘটনা স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়ায় তা রেকর্ড করার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক মিজানুর রহমান। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মুজাহিদুল ইসলাম তাদের জবানবন্দী রেকর্ড করেন।

এরপর তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত ঢাকার চিপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর আনারুল কবিরবাবুল এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গত শনিবার ৩ ফেব্রুয়ারি রাত নয়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় মীর মোশারফ হোসেন হলে স্বামীকে আটকে গৃহবধূকে হল সংলগ্ন জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে এক ছাত্রলীগ নেতা সহ কয়েকজন

এ ঘটনায় মামলা আদায় করেন ভুক্তভোগী নারীর স্বামী। পরে মামলার আসামি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী মোস্তাফিজুর রহমান ও অন্য চারজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর ৭ ফেব্রুয়ারি গণধর্ষণের মূল পরিকল্পনাকারী মামুনুর রশিদ মামুনকে রাজধানীর ফার্মগেট এলাকা থেকে গ্রেফতার করে RAB এছাড়া ধর্ষণের অন্যতম সহাকারীমোঃ মুরাদকে নওগাঁ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন