বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

মধুপুরে জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রবাসীকে মারপিট করে গুরুতর আহত

মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

 

 

টাঙ্গাইলের মধুপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রবাসীকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে,(১৫ এপ্রিল) সকাল অনুমান ১১ ঘটিকায় উপজেলার মহিষমারা ইউনিয়নের আশ্রা গ্রামের মামা ভাগ্নে মোড় এলাকায়। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগ ও আহত ব্যক্তি এবং পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মহিষমারা ইউনিয়নের হলদিয়া কৈয়াপাড়া এলাকার মৃত আক্কাস আলীর ছেলে শফিকুল ইসলামদের সাথে একই বংশের পাশাপাশি বাড়ীর শাহাদ আলীর ছেলে শাহীন (২৮) সোহেল (২৪) সাইফুল ইসলাম (৩৫) গংদের সাথে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। উল্লেখ্য শফিকুল ইসলাম দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসী। সে ঈদের ছুটি নিয়ে ১০ এপ্রিল বাড়ীতে আসে। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বিবাদীগন প্রবাসী শফিকুলের বড় ভাই সিদ্দিক (৪৫) ভাতিজা হাসিবুলকে (২৪)কে মারপিট করিলে এ ব্যাপারে মধুপুর থানায় একটি মামলা দায়ের হয় মামলা নাম্বার ০৬ তারিখ ১১ এপ্রিল। মামলাটি বর্তমানে তদন্তাধীন আছে। মামলার পর বিবাদীপক্ষ আরও হিংস্র হয়ো উঠে বলে জানান ভুক্তভোগীর পরিবার। এদিকে বিবাদী গন প্রবাসী শফিকুল ইসলামকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ো আসছিল বলে জানান শফিকুল। ১৫ এপ্রিল আশ্রা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জনৈক সজীব এর প্রাইভেটকার ভাড়া করে নিজ বাড়ী ফিরার পথে সকাল অনুমান ১১ ঘটিকার সময় হলদিয়া কৈয়াপাড়া গ্রামের শাহাদ আলীর ছেলে শাহীন (২৮) সোহেল(২৪) শাহীনের স্ত্রী পারভীন, শাহাদ আলীর স্ত্রী মেরী(৪৮) রশিদের ছেলে খোকন (৩৮) সহ আরও অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জন বিবাদী পুর্ব শত্রুতার জের ধরে মহিষমারা ইউনিয়নের আশ্রা মামা ভাগ্নে মোড়এলাকায় পাকা রাস্তায় শফিকুল ইসলামের ভাড়াকৃত প্রাইভেটকারের গতিরোধ করে শফিকুলকে টেনে হেচড়ে রাস্তার উপর ফেলে এলোপাথাড়ি ভাবে মারপিট করে এবং মাথায় কুপিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। তার নিকট থাকা ১৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে বলেও জানান। শফিকুল ও ড্রাইভারের ডাক চিৎকার শুনে স্হানীয় লোকজনের সহায়তায় আহত শফিকুলকে উদ্ধার করে প্রাইভেটকার যোগে তাকে চিকিৎসার জন্য মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে। তার অবস্থা আশংকাজনক থাকায় হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্হা করেন। এব্যাপারে শফিকুলের স্ত্রী নাহার বাদী হয়ে মধুপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে জানান ভুক্তভোগী শফিকুল ইসলাম।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন