বুধবার, ২২ মে ২০২৪

বিশ্বনাথে পৌরমেয়র ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ

সিলেট বিভাগীয়প্রধান

সিলেট জেলার বিশ্বনাথ থানার পৌরমেয়র ও নারী কাউন্সিলরদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় আশপাশের দোকানপাট ও সিএনজি অটোরিকশা ভাঙচুর করা হয়। এ সময় আশপাশের দোকানপাট বন্ধ করে দেওয়া হয়। গতকাল রোববার

সিলেটের বিশ্বনাথ পৌরসভার মেয়র মুহিবুর রহমান ও ২ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর রাসনা বেগমের সমর্থকদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলার ঘটনা ঘটে। এতে পথচারীসহ অন্তত ১০/১৫ জন আহত হয়েছেন। এ সময় উভয় পক্ষের সমর্থকেরা সিএনজিচালিত কয়েকটি অটোরিকশা ও দোকানপাট ভাঙচুর করে। জানা যায় রোববার বেলা তিনটার দিকে পৌরসভার নতুন বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এর আগে উভয় পক্ষের লোকজন একই এলাকায় পাল্টাপাল্টি প্রতিবাদ সভা ডাকেন। ওই সভা ঘিরে উত্তেজনা দেখা দেয়। এরই জেরে সমাবেশ শুরুর আগে ইটপাটকেল নিক্ষেপের পাশাপাশি হামলার ও ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, কাউন্সিলর রাসনা বেগম তিনি উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক। তিনি ২৪ এপ্রিল মেয়র মুহিবুর রহমান, দুই কাউন্সিলরসহ আটজনের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ করে বিশ্বনাথ থানায় একটি মামলা করেন। এরপর মেয়র পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করে মামলাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে দাবি করেন। এ নিয়ে কয়েক দিন ধরেই পৌর শহরে উত্তেজনা চলছে।
বেলা তিনটায় নতুন বাজার এলাকায় মেয়র পক্ষের লোকজন মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সভা ডাকেন। একই সময় একই স্থানে মেয়রকে গ্রেপ্তারের দাবিতে নারী কাউন্সিলরের পক্ষে আরেকটি সমাবেশ ডাকে পৌর আওয়ামী লীগ। সমাবেশ শুরুর আগে উভয় পক্ষের লোকজন জড়ো হলে ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও পাল্টাপাল্টি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে বিশ্বনাথ থানা পরিস্থিতি পুলিশ নিয়ন্ত্রণে আনে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন