রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

পিটিআই জোট গঠনের পথে হাঁটবে না

মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন স্টাফ রিপোর্টার

 

পাকিস্তানের নির্বাচনে এ পর্যন্ত সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে এ পর্যন্ত প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী সবচেয়ে এগিয়ে থাকা দল পাকিস্তান তেহরি ই ইনসাফ পিটিআই জানিয়েছেন ওপর দুই দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ নওয়াজ পি এম এল এন বা পাকিস্তান পিপুলস পার্টি পিপিপি কিংবা অন্য কোন দলের সঙ্গে জোট করার কোন পরিকল্পনা নেই দলটির। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জিও নিউজ কে পিটিআইয়ের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার গহর খান বলেন এখন পর্যন্ত যে ফলাফল এসেছে তাতে এটা স্পষ্ট যে পিটিআই এককভাবে

সংখ্যাগরিষ্ঠ তা পেতে যাচ্ছে। যেহেতু এককভাবে সরকার গঠনের সুযোগ আমাদের রয়েছে তাই জোট গঠনের কোন পরিকল্পনা আমাদের নেই। পিএম এল এন অথবা পিপি পির সঙ্গে কোন যোগাযোগও আমাদের হয়নি। পাকিস্তান

পার্লামেন্ট ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি নির্বাচন হয়েছে গত ৮ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার। এসেম্বলি মোট আসন সংখ্যা ২৬৬ টি এসব আসনের মধ্যে একটি ব্যতীত বাকি সবগুলোতেই নির্বাচন ভোট গ্রহণ হয়েছে। বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা রয়টারসের তথ্য অনুযায়ী গতকাল শুক্রবার রাত পর্যন্ত ২৪৫ টি আসনের ফলাফল জানা গেছে। সেখানে দেখা গেছে 98 টি আসনে জয়ী হয়েছে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক ই ইনসাফ পিটিআই।

৬৯ টি আসন পেয়েছেন নওয়াজ শরীফের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান মুসলিম লীগ। এবং বিলা ওয়াল ভুট্টো জারদারির নেতৃত্ব দিন পাকিস্তান পিপলস পার্টি পেয়েছেন ৫১ টি আসন। গতকাল শুক্রবার রাতে লাহোরের নিজ বাসভবনের সামনে জড়ো হওয়া কর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশ্যে দেওয়া এক ভাষণে পি এম এ এন কে বিজয় বলে দাবি করেন নওয়াজ শরীফ। তিনি বলেন অন্য দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নিয়ে জোট সরকার করতে চায় পি এম এল এন। পি এম এল এন এর জেষ্ঠ নেতা পাকিস্তানের সাবেক অর্থমন্ত্রীইসকদার

জানিয়েছেন অনেক পিটিআই স্বতন্ত্র বিজয়ী প্রার্থী ইতিমধ্যে টি এম এল এনের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছেন। এ প্রসঙ্গে পাকিস্তানের সংবিধান অনুসারে কোন স্বতন্ত্র প্রার্থী যদি নির্বাচনের জয় হন তাহলে ফলাফল প্রকাশের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তাকে কোন না কোন রাজনৈতিক দলে যোগ দিতে হবে। তবে পিটিআই স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিষয়টি ভিন্ন পাকিস্তান নির্বাচন কমিশনার এবং উচ্চ আদালতে নিষেধাজ্ঞা থাকার কারণে দলীয় পথিক ক্রিকেট ব্যাট ব্যবহার করতে পারেননি।

 

পিটিআই প্রার্থীরা বাধ্য হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্য বরাদ্দ প্রতীক ব্যবহার করতে হয়েছে। তাদের পিটিআইয়ের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ইমরান খান বর্তমানে কারাগারে আছেন। তার অনুপস্থিতিতে দলের কার্যক্রম চালিয়ে নিতে গত নভেম্বরের শেষের দিকে নুতন কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন করতে পিটিআই গত ২ ডিসেম্বর গঠিত নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান হন ইমরান খানের প্রধান আইনজীবী এবং তার আস্থাভাজন ব্যারিস্টার গহর খান।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন