বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

পঞ্চগড় জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির ফেব্রয়ারী মাসের সভা অনুষ্ঠিত

পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি

 

 

পঞ্চগড় জেলার সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম। সভায় জেলার সার্বিক আইনশৃংঙ্খলা বিষয়ক গত সভার কার্যবিবরণী তুলে ধরেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সীমা শারমিন।

সভায় পুলিশ সুপার জেলার সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরে বলেন, সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক পুলিশ বিভাগ তৎপর রয়েছে। গতবারের সালানা জলসা থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার ব্যাপক নিরাপত্তা নেয়া হয়েছে।

১৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে.কর্নেল যুবায়েদ হাসান বলে সীমান্তের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। সীমান্তের যে কোন অপরাধ নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিজিবি দায়িত্ব পালনে সজাগ আছে। বেসামরিক প্রশাসন চাইলে সালানা জলসার নিরাপত্তায় বিজিবি দায়িত্ব পালন করবে। এজন্য বিজিবি প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান শেখ ছোটখাট চুরিসহ অপরাধ এড়াতে শহরের সিসি টিভিগুলো সচল করা, পর্যবেক্ষণের রাখা ও নতুন করে আরো সিসিটিভি স্থাপনের দাবি জানান।
সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, আহমদিয়া জামাতের বার্ষিক সালানা জলসাকে কেন্দ্র করে কোন ধরণের উস্কানিমূলক বক্তব্য প্রচার করলেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। যে কোন ধরণের উস্কানি বরদাশত করা হবে না। তারা তাদের নির্ধারিত স্থানে জলসা করবে এতে কারো আপত্তি করা ঠিক হবে না। কে মুসলমান আর কে কাফের এটা বলার ক্ষমতা কাউকে দেয়নি সংবিধান।

সালানা জলসাকে কেন্দ্র করে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা যেন কেউ ঘটাতে না পারে এজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর আছে। তিনি বলেন, ‘জেলা-উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, বিজিবি, জনপ্রতিনিধিসহ সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতায় পঞ্চগড় জেলাকে চুরি, ডাকাতি, চোরাচালান, মাদকসহ সকল অপরাধ মুক্ত করা সম্ভব। আমরা সকলে সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছি। জেলার সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করে তিনি বলেন, যে কোন মূল্যে জেলার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সকলকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে।

এছাড়া সভায় আহমদিয়া জামাতের সালানা জলসা, মাদক, নারী শিশু পাচার, নারী শিশু নির্যাতন, ধর্ষণ, আত্মহত্যা, নিরাপদ সড়ক, যানজট, দ্রব্যমমূল্য, ভেজালমুক্ত খাদ্য, চিতা বাঘ হত্যা, সীমান্ত নদীসহ সমতলে পাথর উত্তোলন, অবৈধ ইটভাটা, করাতকল, অবৈধ পাথর- বালু উত্তোলন, জুয়া বিষয়ে আলোচনা এবং এসব কার্যক্রম বন্ধে কতিপয় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

সভায় মকবুলার রহমান সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. দেলওয়ার হোসেন প্রধান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম শফিকুল ইসলাম, সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি ডা. রাজিউল করিম, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আবু তোয়বুর রহমান, পঞ্চগড় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জামিল চৌধুরী ডলার, কমিটির সদস্য জ্যেষ্ঠ গণমাধ্যমকর্মী শহীদুল ইসলাম শহীদ, পঞ্চগড় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সফিকুল আলম সফিক বক্তব্য দেন।

সভায় বিভিন্ন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা বৃন্দ।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন