শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪

পঞ্চগড় গরু চুরি মামলার মুল রহস্য উদঘাটনঃ

পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি খাদেমুল ইসলাম

 

পঞ্চগড় গরু চুরি মামলার মুল রহস্য উদঘাটন করে বাদীর চুরি যাওয়া ০১ টি ফ্রিজিয়ান গাভীন গরু উদ্ধার সহ ঘটনার সহিত জড়িত মুল অপরাধী চক্র চার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
মঙ্গলবার (৬ ফেব্রয়ারী)

রাত্রী ০২.৩০ ঘটিকায় ০৪ নং কামাত কাজল দিঘী ইউনিয়নের কাটাবাড়ি এলাকার (স্কোয়ারের বাধ সংলগ্ন)
বসতবাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করিয়া আটক করে পুলিশ। পঞ্চগড় সদর থানার নেতৃত্বে এসআই মোঃ সাহিদুর রহমান,এস আই মোঃ শামসুজ্জোহা সরকার,এএসআই/মোঃ আজিজুর মিয়া সঙ্গীয় ফোর্সসহ পঞ্চগড় সদর থানা সহ বোদা থানায় অভিযান পরিচালনা করিয়া গরু চুরি মামলার মুল রহস্য উদঘাটন,বাদীর চুরি যাওয়া ০১ টি কালো রংয়ের ফ্রিজিয়ান গরু উদ্ধার সহ ঘটনার সহিত জড়িত মুল অপরাধী চক্র গ্রেফতার।

 

মামলার সুত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় ইং ৩১/০১/২০২৪ তারিখ রাত অনুমান ২২:৩০ ঘটিকার সময় বাদী সহ তাহার পরিবার খাওয়া দাওয়া শেষে পঞ্চগড় পৌরসভাধীন ৫ নং ওয়ার্ড কামাতপাড়াস্থ আমার বসত বাড়ির পূর্ব দুয়ারী গোয়াল ঘরে নিম্ন বর্নার একটি গরু রাখিয়া বাহিরে ছিটকিনী দিয়া দক্ষিন দুয়ারী ঘরে ঘুমাইয়া পড়ে।

বাদী ইং ০১/০২/২৪ রাত অনুমান ০৪.৩০ ঘটিাকর সময় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘুম থেকে জাগ্রত হইয়া দেখে, তাহার পূর্ব দুয়ারী গোয়াল ঘরের দরজা খোলা । তারপর বাদী গোয়াল ঘরে প্রবেশ করে দেখে যে, তাহার গোয়াল ঘরে রাখা একটি ফ্রিজিয়ান গাভীন গরু,গায়ের রং কালো,শিং ছোট বাকা,বয়স জোয়ান, খুরের রং কালো, মূল্য অনুমান ১,৫০,০০০/- (এক লক্ষ পঞ্চশ হাজার) টাকা নাই। অজ্ঞাতনামা চোর বা চোরেরা ইং-৩১/০১/২০২৪ তারিখ রাত অনুমান ২২.৩০ ঘটিকা হইতে ০১/০২/২০২৪ ইং তারিখ রাত ০৪.৩০ ঘটিকার মধ্যে সঙ্গোপনে তাহার পূর্ব দুয়ারী গোয়ালঘরের ছিটকিনী খুলিয়া গোয়ালঘরে প্রবেশ করিয়া তাহার উপরোক্ত বর্ণনার গরুটি চুরি করেছে মর্মে থানায় এজাহার দায়ের করিলে অফিসার ইনচার্জ পঞ্চগড় সদর থানার মামলা নং ১০, তারিখ-০৬/০২/২৪ ,ধারাঃ- ৪৫৭/৩৮০ পেনাল কোড রুজু করত বাদীর চুরি যাওয়া গরু উদ্ধারে নামে পঞ্চগড় সদর থানার বিশেষ একটি চৌকস টিম।

মামলার তদন্তকালে তথ্য প্রযুক্তি ও গোপন সোসের মাধ্যমে অত্র মামলার তদন্তে প্রাপ্ত ঘটনার সাথে জড়িত আসামী মোঃ রুহুল আমিন ওরফে ছোট মনাকে ইং ০৬/০২/২৩ তারিখ রাত্রী ০০.৪০ ঘটিকায় পঞ্চগড় পৌরসভাধীন বাজার এলাকা হইতে গ্রেফতার পুর্বক বাদীর গরু চুরি কথা স্বীকার করেন। সেসময় ধৃত আসামীকে আরোও জিজ্ঞাসাবাদে জানায় যে,মামলার ঘটনার তিন দিন আগে অপর পলাতক আসামী মোঃ রমজান আলী ওরফে সিদ্দি রমজান (৩৮) পিতা-মোঃ সলেমান আলী,সাং-তুলার ডাঙ্গা, থানা ও জেলা-পঞ্চগড় ধৃত আসামীকে বাদীর গরুটি চুরি করার প্রস্তাব দেয়।

পলাতক আসামী রমজান ওরফে সিদ্দি রমজান এর পরিক্লপনা মোতাবেক মামলার ঘটনার দিন ধৃত আসামীসহ পলাতক আসামী ১। মোঃ রমজান, ২। মোঃ বেদুল ইসলাম বাবলা(৪০) পিতা- মৃত তছির উদ্দিন, ৩। মোঃ আলামিন ইসলাম (২৫) পিতা-আইবুল হক,উভয় সাং- শেখের হাট কায়েত পাড়া, ৪। মোশারফ হোসেন ছুটু (৫০) পিতা- মৃত আজিজার রহমান,সাং-খোলাপাড়া, সকলের থানা ও জেলা-পঞ্চগড় বাদীর বাসায় সঙ্গোপনে পূর্ব দুয়ারী গোয়ালঘরের ছিটকিনী খুলিয়া গোয়ালঘরে প্রবেশ করিয়া তাহার ফ্রিজিয়ান কালো গাভীন গরু, মূল্য অনুমান ১,৫০,০০০/- (এক লক্ষ পঞ্চশ হাজার) টাকা চুরি করিয়া ০৪ নং কামাত কাজল দিঘী ইউনিয়নের কাটাবাড়ি এলাকায় (স্কোয়ারের বাধ সংলগ্ন) জনৈক হারুন এবং সুরজ জামালদ্বয়ের নিকট ৮০,০০০/= হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রয় করেন। পলাতক আসামীরা ধৃত আসামীকে ৩০০০ হাজার টাকা দিয়া পরবর্তীতে আরো টাকা দিবে বলিয়া চলিয়া যাই।

পর্বতীতে ধৃত আসামী মোঃ রুহুল আমিন ওরফে ছোট মনা এর তথ্য অনুসারে ইং ০৬/০২/২৪ তারিখ রাত্রী ০২.৩০ ঘটিকায় ০৪ নং কামাত কাজল দিঘী ইউনিয়নের কাটাবাড়ি এলাকার (স্কোয়ারের বাধ সংলগ্ন) মোঃ হারুন ওর রশিদ এবং সুরুজ্জামালদ্বয়ের বসতবাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করিয়া ঘটনার সাথে জড়িত আসামী মোঃ হারুন ওর রশিদকে গ্রেফতার পূর্বক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামী হারুন ও পলাতক আসামী সুরুজ্জামালদ্বয় ৮০ হাজার টাকায় বিনিময়ে বাদীর চুরি যাওয়া গরুটি ক্রয় করিয়া হাফিজাবাদ ইউনিয়নের পানিমাছপুকুরী এলাকার জনৈক সেলিম (৩৮) পিতা-মোঃ কহিনুর সাং- পানিমাছ পুকুরী, থানা ও জেলা-পঞ্চগড় এর নিকট বিক্রয় করেন মর্মে স্বীকার করেন।

পরবর্তীতে ধৃত আসামীদ্বয় সহ পানিমাছপুকুরী এলাকায় সেলিম এর বসতবাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করিয়া তাহার বসতবাড়ীর উত্তর কোনে পূর্ব দুয়ারী গোয়াল ঘরের ভিতর হইতে বাদীর চুরি যাওয়া একটি ফ্রিজিয়ান গাভীন গরু,গায়ের রং কালো,শিং ছোট বাকা,বয়স জোয়ান, খুরের রং কালো, মূল্য অনুমান ১,৫০,০০০/- (এক লক্ষ পঞ্চশ হাজার) টাকা চোরাই উদ্ধার আলামতে হিসাবে জব্দ করা হয়।ধৃত আসামীগণ আন্তঃজেলার গরু চোর দলের সক্রিয় সদস্য। তাহাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রহিয়াছে। উপরোক্ত আসামীদের গ্রেফতার সহ চুরি যাওয়া গাভী উদ্ধার হওয়া স্থানীয়দের মাঝে ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন