রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

নির্বাচন আচরণবিধি না মানার অভিযোগে আদালতের লিখিত জবাব দেন

পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি খাদেমুল ইসলাম

 

পঞ্চগড়ে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাচন আচরণবিধি না মানার অভিযোগে নির্বাচন কমিটির দেওয়া কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব দিয়েছেন পঞ্চগড়-১ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নাঈমুজ্জামান ভূঁইয়া মুক্তা।

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যান ও যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মার্জিয়া খাতুনের আদালতে সশরীরে উপস্থিত হলে আদালতের খাস কামরায় তিনি লিখিত জবাব দেন।

এর আগে গত মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থকের দেওয়া হাড়হাড্ডি ভেঙে ফেলার হুমকিতে আচরণবিধি লঙ্ঘন হওয়ায় তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়।

বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সশরীরে উপস্থিত থেকে নোটিশের জবাব দিয়েছেন নাঈমুজ্জামান মুক্তা।

এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার উপস্থিতিতে এক সহকর্মী যে বক্তব্য দিয়েছেন ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা যে অভিযোগ করেছেন সেটি আমার কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি ছিল না। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বাসায় বেড়াতে গিয়েছিলাম।

এর মাঝে ঘরোয়া একটি বৈঠকে আমাদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রসঙ্গতভাবে আগের যে ঘটনা ঘটেছে তার পরিপ্রেক্ষিতে বলে ফেলেছে। যদিও আমার কাছে এ বক্তব্য গ্রহণযোগ্য না।

এ বক্তব্যে তাৎক্ষণিক আমাদের সেই নেতাকে তিরস্কার করে ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করেছি। এদিকে আগামীতে আমার কোনো সভায় যেন এমন বক্তব্য কেউ না দেন, সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন করেছি।
নির্বাচন আচরণবিধি সংক্রান্ত বিষয়ে আদালতে যে কারণে আমাকে ডেকেছিলেন, তার জন্য সশরীরে উপস্থিত হয়ে আদালতে তার জবাব দিয়েছি। আর এর মাধ্যমে প্রমাণিত হয় শেখ হাসিনার অধীনে সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হওয়া সম্ভব। এ থেকে আরও প্রমাণিত হচ্ছে জবাবদিহিতার বাইরে কেউ নয়।

তবে আজকে যে জবাবদিহিতার মাঝে পড়লাম, তা আমাদের কাছে একটি শিক্ষা। একই সঙ্গে আমাদের যারা স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন, এটি তাদের জন্যও একটি সতর্ক বার্তা। আগামী ০৭ জানুয়ারিতে জনগণ যাকে ভালোবেসে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবে, তার জন্য আমরা মানসিকভাবে প্রস্তুত আছি।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন