বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

নির্বাচনে অংশগ্রহণ করায় বিএনপির প্রার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

খাদেমুল ইসলাম
পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করায় বিএনপির দুই প্রার্থীকে কারণ দর্শানোর (শোকজ) নোটিশ করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি।

শুক্রবার (০৩ মে) রাতে দলটির পাওয়া একটি চিঠির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। এছাড়া আগামী ৮ মে প্রথম পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পঞ্চগড় সদর, তেঁতুলিয়া ও আটোয়ারী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। আর এ নির্বাচনে অংশ নিতে এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে সেচ্ছায় পদত্যাগ পত্র দাখিল করেন বিএনপির আরও চারজন প্রার্থী। পরে গত ২৭ এপ্রিল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভীর স্বাক্ষরিত একটি চিঠির মাধ্যমে সবাইকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়।

দল থেকে অব্যাহতি পাওয়া ও নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রর্থীরা হলেন- পঞ্চগড় সদর উপজেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক ও প্রজাপতি মার্কার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজল রেখা, তেঁতুলিয়া উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কলস মার্কার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সুলতানা রাজিয়া, তেঁতুলিয়া উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক চশমা মার্কার ভাইস চেয়ারম্যানে প্রার্থী খন্দকার আবু সালেহ ইব্রাহিম (ইমরান), তেঁতুলিয়ার ৭ নম্বর দেবনগড় ইউনিয়ন বিএনপির সদস্য ঘোড়া মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী মুক্তারুল হক মুকু।
গত বৃহস্পতিবার বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভীর চিঠিতে স্বাক্ষর করেন।
নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী দুই প্রার্থী হলেন- পঞ্চগড় জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক ও বোদা উপজেলার সদস্য সচিব এবং বোদা উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী কলস মার্কার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী লাইলী বেগম।

অপরজন একই উপজেলার বড়শী ইউনিয়নের বিএনপির সদস্য ও চশমা মার্কার ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মোরসালিন বিন মমতাজ রিপন।
নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটি নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের পরেও দ্বিতীয় দফায় অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এহেন মনোবৃত্তি দলীয় শৃঙ্খলা পরিপন্থি ও দলের প্রতি চরম বিশ্বাসঘাতকতা। গঠনতন্ত্র মোতাবেক তার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না মর্মে কারণ দর্শানোর জন্য ৪৮ ঘণ্টা সময় দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে কথা হয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী লাইলী বেগমের সঙ্গে। তিনি বলেন, গতবারেও আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে মাত্র কিছু ভোটের ব্যবধানে হেরেছিলাম। ভোটারসহ সবার ভালোবাসা ও আগ্রহ রয়েছে আমার প্রতি। তাই নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়ন প্রত্যাহারের আগেই কমিটি থেকে আমি সেচ্ছায় পদত্যাগ করেছি। এর পরেও আমাকে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে নোটিশ করা হয়েছে। আমি নোটিশটি পেয়েছি, যেহেতু তারা আবারও আমার কাছে জবাব চেয়েছে তাই আমি এর জবাব জানাবো। তারপর দল যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার তাই নেবে।

ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মোরসালিন বিন মমতাজ রিপন বলেন, আমি গত পাঁচ বছর আগেই দল থেকে সরে গিয়েছি। তাই আমি বর্তমানে দলের কোনো পদে নেই। একইসঙ্গে আমি দলটির কোনো কার্যক্রমে বর্তমান জড়িত না। আর কেন্দ্রীয় কমিটির নোটিশের বিষয়ে আমি অবগত না, আমার হাতে কোনো নোটিশ আসে নি। আমি নির্বাচনে নেমেছি, ইনশাআল্লাহ্ শেষ পর্যন্ত থাকবো এবং বিপুল ভোটে জয় লাভ করবো বলে আমি আশাবাদী।জানা গেছে, আগামী ২১ মে দ্বিতীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জেলার বোদা ও দেবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। আর এ নির্বাচনে বোদা উপজেলা পরিষদ থেকে চেয়ারম্যান পদে সাতজন প্রার্থী, ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন প্রার্থী ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন