শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর ২০২১

নারী অধিকার নিয়ে নাক না গলানোর আহ্বান তালেবানের

ঢাকা

আফগান নারীদের অধিকার নিয়ে নাক না গলানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে তালেবান।

৩ সেপ্টেম্বর মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ আহ্বান জানান তালেবানের মুখপাত্র সুহাইল শাহিন।

আফগানিস্তান তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার পর দেশটির নারীদের প্রতি তালেবানের আচরণ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা বিশ্ব ক্রমাগত উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছে। পশ্চিমাদের এ উদ্বেগের জবাব দেন সুহাইল।

বিজ্ঞাপন

সাক্ষাৎকারে সুহাইল বলেন, আফগানিস্তানে নারীদের অধিকার নিয়ে তাঁদের কোনো সমস্যা নেই। নারীদের শিক্ষা বা তাঁদের কাজ করার অধিকার নিয়েও কোনো সমস্যা নেই।

পশ্চিমাদের উদ্দেশে তালেবানের মুখপাত্র বলেন, ‘একে অন্যের সংস্কৃতি পরিবর্তন করার চেষ্টা না করলেই হলো। আমরা যেমন আপনাদের সংস্কৃতি পরিবর্তন করার কথা বলছি না, তেমনি আপনারাও আমাদের সংস্কৃতি পরিবর্তন করার চেষ্টা করবেন না।’

মার্কিন সংবাদমাধ্যম পলিটিকো এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বিশ্বের সব মানবাধিকার সংগঠন ও নারী রাষ্ট্র-সরকারপ্রধান আফগান নারীদের অধিকার সংরক্ষণ নিশ্চিত করার জন্য জোটবদ্ধ হচ্ছেন।

বিজ্ঞাপন

ইউনিসেফের নির্বাহী পরিচালক হেনরিয়েটা ফোর ইতিমধ্যে বলেছেন, আফগানিস্তানে নারীদের অনেক কাজে তাঁরা দেখতে চান। শিক্ষকতা, স্বাস্থ্যসেবাসহ সমাজের অন্যান্য পেশায় আফগান নারীদের কাজ করার অধিকার দেওয়া হবে কি না, এ নিয়ে তাঁরা নিশ্চিত নন।

সুহাইল তাঁর সাক্ষাৎকারে বলেন, পশ্চিমাদের সঙ্গে তাঁদের ভাবনায় পার্থক্য রয়েছে। তাঁর ভাষ্যমতে অনুযায়ী, ‘পশ্চিমা মতে নারীদের হিজাব না পরেই শিক্ষা গ্রহণ করার কথা বলা হয়। আমাদের সংস্কৃতি বলে হিজাব পরে শিক্ষা গ্রহণের জন্য, হিজাব পরে চাকরি করার জন্য।’

আমেরিকার সঙ্গে ভবিষ্যৎ সম্পর্ক নিয়েও কথা বলেছেন তালেবানের এ মুখপাত্র। তিনি বলেন, ‘আমরা সামনের দিনগুলোয় উভয় পক্ষের স্বার্থ সংরক্ষণ করে গঠনমূলক কাজ করতে পারি।’

বিজ্ঞাপন

একটা অধ্যায়ের সমাপ্তই ঘটেছে বলে উল্লেখ করেন সুহাইল। তিনি বলেন, অধ্যায়টি ছিল আমেরিকার দখলদারি। এখন পুরোনো সবকিছু ভুলে সামনের দিনগুলোয় সহযোগিতা নিয়ে কাজ করালে আমেরিকা ও আফগানিস্তান উভয়ের মঙ্গল হবে।

বার্তা সংস্থা রয়টারের বরাত দিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, তালেবানের সহপ্রতিষ্ঠাতা মোল্লা আবদুল গনি বারাদারকে প্রধান করে নতুন সরকারের ঘোষণা শিগগির আসছে। এ সরকারে মন্ত্রী হিসেবে থাকতে পারেন ২৫ জন তালেবান নেতা।

বিজ্ঞাপন

থেকে আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন