রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারাদেশে ভোট পড়েছে চল্লিশ শতাংশ সিইসি

মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন স্টাফ রিপোর্টার

 

 

দ্বাদশ  সংসদ নির্বাচনে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছি বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল। রোববার ৭ জানুয়ারি বিকেলে আগারগাঁও নির্বাচন কমিশন রিসিভ ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি। সকাল আট টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয় একটানা বিকাল ৪:০০ টা পর্যন্ত চলে। কোন বড় সহিংসতা ছাড়া বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনার মধ্য থেকে সারাদেশে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। সি ই সি বলেন সকালে আমরা শান্তিপূর্ণ অবাধ দেখেছি। পরে টিভির তথ্য থেকে মনে হয়েছে সহিংসতার মত গুরুতর ঘটনা ঘটেনি। তারপরও যা করেছে আমরা তাৎক্ষণিকভাবে পদক্ষেপ নিয়েছি আমরা গ্রেপ্তার করেছি শেষ মুহূর্তে দুজন নির্বাচনী কর্মকর্তা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তারা মারা যান। সেজন্য তাদের প্রতি সমবেদনা জানাই। নির্বাচন সহিংসতা কোন মৃত্যু ঘটনা ঘটেনি উল্লেখ করে তিনি বলেন কিছু কিছু অভিযোগ এসেছে ব্যালটেসীল মারার। আমরা মনিটরিং সেল সেটি পর্যবেক্ষণে রেখেছেন। আমরা ক্রস চেক করে পর্যবেক্ষণে রেখেছেন। ঠিক তখনই ব্যবস্থা নিয়েছি শেষ মুহূর্তে একজনের প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে।

 

তিনি আরো বলেন এখন চূড়ান্ত পার্সেস হয়নি। তবে আমরা তথ্য পেয়েছি তাতে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে এবং এন্টি হয়েছে। যতটুকু সেটি অনুযায়ী চল্লিশ শতাংশ এটি বাড়তেওপারে আবার নাও বাড়তে পারে। ভোট কম পড়া কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন একটি বড় দল নির্বাচন বর্জন করেছে এবং ভোট থেকে বিরত রাখার চেষ্টা করে সেজন্য ভোট কিছুটা কম পড়েছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যালটেসিল মেরেছে, আমরা কিছু ধরেছি সেগুলো চূড়ান্ত গণনা থেকে বাদ দেওয়া হবে। সেগুলোর পিছনে সিল বা সই ছিল না। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ আহসান হাবিব খান অবসরপ্রাপ্ত। বেগম রাশেদা সুলতানা। মোহাম্মদ আলমগীর। আনিসুর রহমান ইসি সচিব। মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন। এর আগে দুপুরে নির্বাচন কমিশন ইসি সচিব মোঃ জাহাঙ্গীর আলম জানিয়েছেন বিকেল তিনটা পর্যন্ত ঢাকায় ২৫ শতাংশ। সিলেটে ২২ শতাংশ। ময়মনসিংহে ২৯ শতাংশ। রাজশাহীতে ২৬ শতাংশ। রংপুরে ২৬ শতাংশ। ও বরিশালে ৩১ শতাংশ ভোট পড়েছে

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন