মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

দোল উৎসব ও মহানাম সংকীর্তন দোল তরুন সংঘের উদ্যোগে

রিপোর্টার্স অঞ্জন লাল মহাজন

 

 

দক্ষিণ রাউজান পূর্ব গুজরাস্হ আধার মানিক দোল সংঘের উদ্যোগে শ্রীকৃষ্ণের দোল পূর্ণিমা উপলক্ষে।দেশ মাতৃকা ও বিশ্বজনীন মানব জাতির শান্তি মঙ্গল কল্যাণ কামনায়।শ্রীমদ্ভগবতগীতা পাঠ প্রতিযোগিতা,ধর্মীয় সংগীতাঞ্জলী নৃত্য অনুষ্ঠান,মহতী ধর্ম আলোচনা সভা ও সার্বজনীন ১২ তম অষ্টপ্রহরব্যাপী শ্রী শ্রী তারকব্রহ্ম মহানামযজ্ঞ সংকীর্তন অনুষ্ঠিত হয়।
কৃষ্ণের দোল পূজার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা আরম্ভ হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাজীব দে( সাজু) শ্রীশ্রী দোল তরুণ সংঘ মহোৎসব উদযাপন পরিষদ। সঞ্চালনায় টিপু গুপ্ত ও শুভ দে (মেঘ) বিশেষ অতিথি ছিলেন পূর্ব গুজারা তদন্ত কেন্দ্র ইনচার্জ কৃষ্ণলাল ঘোষ। প্রধান অতিথি ৫ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য সজল মহাজন।প্রধান উপদেষ্টা অনিল দে,গৌরাঙ্গ প্রসাদ দে, অরুণ দে,প্রদুল কান্তি দে,বিপ্লব দে, প্রদীপ দে স্বপন গুপ্ত, বাবুল গুপ্ত, সুধীর গুপ্ত, সনজিত দে,দয়াল দে মৃদুল দে সুকুমার দে স্বদেশ দত্ত রঞ্জিত দে,শিবু দে,রবি দে, দুর্গাপদ দে, সন্তোষ দে,শ্রীশ্রী দোল তরুণ সংঘের কার্যকরী কমিটির। সভাপতি সুদর্শন গুপ্ত,সাধারণ সম্পাদক রতন মহাজন, আশিষ দে,মিন্টু দে অমর দে দীপন গুপ্ত, শিমুল গুপ্ত, তাপস গুপ্ত, রাজু দে দুলাল দে, উত্তম গুপ্ত শুভ দে, (মেঘ) সুমন দে,। সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রনি দে, রিমন দে, শিবু গুপ্ত, টিপু গুপ্ত, নিমাই গুপ্ত সঞ্জয় গুপ্ত জনি দে স্বদেশ দে রুবেল দে, গৌতম গুপ্ত জুয়েল গুপ্ত জয় দে, পিয়াল দে মাইকেল দে ইমন দে কার্যকরী সদস্য টিংকু দে, লক্ষণ দে, রকেট দে, অশোক দে, টিটু দে, উজ্জ্বল দে, রুপম দে, শান্ত দে, সুভাষ দে, শ্রীশ্রী দোল তরুণ সংঘের উৎসব উদযাপন পরিষদ কমিটির সভাপতি সাজিব দে( সাজু) অর্থ সম্পাদক শুভ দে(মেঘ) সাধারণ সম্পাদক টিপু গুপ্ত,নিমাই গুপ্ত, সঞ্জয় দে, মিশু দে,, জনি দে, রুবেল দে, গৌতম গুপ্ত, জুয়েল গুপ্ত জয় দে, পিয়াল দে, মাইকেল দে, ইমন দে, টিংকু দে, এবং উৎসব কমিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। এতে সভাপতি বলেন আমরা প্রতি বছর এই উৎসব করে থাকি দোল পূজা উপলক্ষে রং মাখামাখি সবাই করে কিন্তু ভগবানকে কয়জন স্মরণ করে। তা আমরা নতুন প্রজন্মকে কি শিখাতে চায়, পাড়া-প্রতিবেশী এবং দেশবাসী প্রতি প্রত্যেকের কাছে এই বার্তা হিসাবে কি দেখানো হচ্ছে ধর্মকে জানুন ভগবানের প্রকৃত কাজ করুন অন্যকে জানান এইতো প্রকৃত মানুষের নিয়ম শ্রীশ্রী ঠাকুর তার দুটো বাণী না বল্লে নয়।(১) ধর্ম যদি নাইরে ফুটলো জীবন মাঝে নিত্যকর্মে বাতিল করে রাখলি তারে কি হবে তোর তেমন ধর্মে।( ২)ধর্ম কিন্তু শিক্ষা কেন্দ্র ধর্ম আনে উন্নতি ধর্ম আচরণে এনে থাকে শ্রেষ্ঠ সুন্দর পরিণতি।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন