সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

তেতুলিয়ায় সীমান্তে হত্যা বন্ধে প্রতীকী লাশ নিয়ে অবস্থান কর্মসুচীও মিছিল

পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি খাদেমুল ইসলাম

সীমান্ত হত্যা ও ‘আগ্রাসন বন্ধের’ দাবিতে তেঁতুলিয়ায় একটি সংগঠন প্রতীকী লাশ নিয়ে অবস্থান কর্মসূচি ও মিছিল করেছে।

শনিবার (২৪ ফেব্রয়ারী) দুপুরে এক ঘণ্টা ধরে পঞ্চগড় জেলা তেঁতুলিয়ায় চৌরাস্তা বাজার, তেঁতুলতলা
চত্বরে বাংলাদেশ গণশক্তি পার্টি এ কর্মসূচি পালন করে।

গণশক্তি পার্টির আহ্বায়ক হানিফ বাংলাদেশি বলেন, “বাংলাদেশের সঙ্গে ভারত ও মিয়ানমারের সীমান্ত রয়েছে। ভারত ও মিয়ানমার সব সময় বাংলাদেশের উপর আগ্রাসন ও সীমান্তে প্রতিনিয়ত হত্যা চালিয়ে যাচ্ছে। ভারত সীমান্তে নিরীহ মানুষকে পাখির মত গুলি করে হত্যা করছে।

“কিছুদিন আগে যশোর সীমান্তে বাংলাদেশের একজন বিজিবি সদস্যকে বিএসএফ গুলি করে হত্যা করেছে। এদিকে গত ৪ মাসে ভারত সীমান্তে ২১ জন বাংলাদেশি বিএসএফের গুলিতে নিহত হয়েছেন।”

তিনি তার বক্তব্যে বলেন, “বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থাগুলোর হিসেবে ২০১০ সাল থেকে প্রায় এক হাজার ২৭৬ জন বাংলাদেশিকে বিএসএফ হত্যা করেছে এবং এক হাজার ১৮৩ জন আহত হয়েছে। গত ৫ ফেব্রুয়ারি থেকে মিয়ানমারের অভ্যন্তরীণ যুদ্ধে মর্টার শেলে দুজন বাংলাদেশি নাগরিক নিহত হয়েছেন।”

সীমান্ত অপরাধ বন্ধে আন্তর্জাতিক আইনে গ্রেপ্তার করে বিচার করার দাবি জানান হানিফ।

২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশের কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে প্রতীকী লাশ নিয়ে লালমনিরহাট, তেতুলিয়ায়
সহ সকল সীমান্তবর্তী জেলায় প্রতিবাদ কর্মসূচি শুরু করে সংগঠনটি।

এই কর্মসূচি আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি যশোর সীমান্তে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালনের মাধ্যমে শেষ হবে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন