সোমবার, ২০ মে ২০২৪

তেতুলিয়ায় বৃষ্টির জন্য ইসতিসকার নামাজ বৃষ্টি চেয়ে বিশেষ মোনাজাত

খাদেমুল ইসলাম
পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি

তেতুলিয়ায় বৃষ্টির জন্য ইসতিসকার নামাজ আদায়।প্রচণ্ড তাপপ্রবাহে জনজীবনে নাভিশ্বাস উঠেছে। গত কয়েকদিনের তীব্র গরমে বিপাকে পড়েছে খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষ। দেখা মিলছে না বৃষ্টির

মানুষের পাশাপাশি হাঁসফাঁস প্রাণিকুল। তীব্র গরম থেকে রক্ষা পেতে তেতুলিয়া বৃষ্টির জন্য ইসতিসকার নামাজ আদায় করেছে মুসল্লীরা। নামাজ শেষে বৃষ্টি চেয়ে বিশেষ মোনাজাত করা হয়
শুক্রবার ২৬ এপ্রিল পবিত্র জুমআ নামাযের পর তেঁতুলিয়া সরকারি কলেজ ঈদগাহ মাঠে তপ্ত রোদে সালাতুল ইস্তিকার নামাজ আদায় অনুষ্ঠিত হয়।

এতে পঞ্চগড় নুরুন আলা নুর কামিল মাদ্রাসার সহকারী অধ্যাপক ও আলেম মাওলানা আব্দুল হান্নান সালাতুল ইস্তিকার আদায়ে ইমামতি ও মোনাজাত পরিচালনা করেন ।

নামাজে অংশ নেয় চৌরাস্তা বাজার জামে মসজিদের ইমাম মোখলেসুর রহমান, সরকারি কলেজ জামে মসজিদের ইমাম জামাল উদ্দিন, মাসুদ রানা ও আলেম-উলামাসহ অত্র উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা শতশত মুসল্লী

 

মুসল্লীরা বলেন, টানাভাবে চলছে তীব্র গরম ও দাবদাহ। বৃষ্টি নেই। গরম ও খরায় জনজীবন বিপর্যস্ত পরিস্থিতিতে পড়েছে। বৃষ্টি না হওয়ার কারণে ক্ষেতের ফসল নষ্ট হতে চলেছে। কোথাও স্বস্তি মিলছে না। তাপ প্রবাহের কারণে নিম্ন আয়ের মানুষগুলো কষ্ট পাচ্ছে। আর আশঙ্কাজনকভাবে নেমে গেছে পানির স্তর নেমে যায় এখানকার কয়েক গ্রামের বাড়িগুলোর টিউবওয়েলগুলোতে পানি মিলছে না। তাই মহান আল্লাহর রহমতের বৃষ্টি চেয়ে দু’রাকাত সালাতুল ইস্তিকার করেছি।

আলেমরা বলেন, দাবদাহ, অনাবৃষ্টির কারণে ওষ্ঠাগত প্রাণ। তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে উঠছে। এমন পরিস্থিতিতে মহান আল্লাহর কাছে বৃষ্টি চেয়ে নামাজ আদায় ও মোনাজাত করা ছাড়া মুমিনদের কোনো উপায় নেই। দোয়ায় অনাবৃষ্টি ও গরম থেকে মুক্তির জন্য মহান আল্লাহর রহমত কামনা করা হয়। আমরা মহান আল্লাহর দরবারে দু’রাকাত সালাতুল ইস্তিকার আদায় করেছি। যেন আল্লাহ আমাদের কৃতকর্মের পাপ ক্ষমা করে রহমতের বৃষ্টি দিয়ে প্রশান্তি দান করেন।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন