রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪

ঢাকায় গৃহকর্মী প্রীতি উরাং এর খুনিদের শাস্তির দাবিতে কমলগঞ্জে মানববন্ধন

মো.সাইদুল ইসলাম (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি

 

ঢাকার মোহাম্মদপুরে ইংরেজি ‘দ্য ডেইলি স্টার’-এর নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুল হকের বাসায় নিহত কিশোরী গৃহকর্মী প্রীতি উরাং এর খুনিদের শাস্তির দাবিতে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার নিহত প্রীতির নিজ এলাকায় মিরতিংগা চা বাগানে সকল শ্রমিক ও জনপ্রতিনিধিবৃন্দর ব্যানারে এ মানববন্ধন আয়োজন করা হয়।

এসময় চা শ্রমিকরা মানববন্ধনে স্লোগান দেন দুনিয়ায় মজদুর এক হয়,চা শ্রমিক হত্যার বিচার চাই,শিশু প্রীতির খুনিদের বিচার চাই, শিশু শ্রম বন্ধ করুন, প্রীতি হত্যার খুনি ডেইলি স্টারের নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুলের ফাসি চাই এভাবে শাস্তির দাবিতে স্লোগান দিতে থাকেন ৫শতাধিক চা শ্রমিক ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধনে স্থানীয় চা বাগানের প্রাথমিক চিকিৎসক সঞ্জয় বাউরীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন রহিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইফতেখার আহমেদ বদরুল, মিরতিংগা চা বাগান পঞ্চায়েত সভাপতি মন্টু অলমিক, আওয়ামীলীগ নেতা সুরুত্যান কান্তি বৈদ্য প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা ঘটনার সুষ্ট তদন্তের মাধ্যমে দায়ীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানান। মানববন্ধনে চা বাগানের শ্রমিকরা অংশগ্রহনের পাশাপাশি স্থানীয় লোকজন ও জনপ্রতিনিধি এবং চা শ্রমিক নেতৃবৃন্দসহ প্রায় ৫শতাধিক চা শ্রমিক অংশ নেয়।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের মনু-দলই ভ্যালীর সভাপতি ধনা বাউরি বলেন, প্রীতি উরাংয়ের মৃত্যুটি আসলেই দূঃখজনক। প্রীতি যে ঢাকায় কাজ করতে গেছে, সেটা বাগানের কেউই জানে না। প্রীতির মামা ও ডেইলি স্টারের মৌলভীবাজার প্রতিনিধি সাংবাদিক মিন্টু দিশোয়ারা গোপনে তাকে ঢাকায় পাঠায়। আমি প্রীতি হত্যায় জড়িতদের তদন্তসাপেক্ষে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।’

এর আগে গত ৬ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার ঢাকার মোহাম্মদপুরে ইংরেজি পত্রিকা ‘দ্য ডেইলি স্টার’-এর নির্বাহী সম্পাদক সৈয়দ আশফাকুল হকের বাসার ভবন থেকে পড়ে মৃত্যু ঘটে কিশোরী গৃহকর্মী প্রীতি উরাংয়ের। এ ঘটনায় বুধবার সকালে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা দায়ের করেন প্রীতির বাবা লোকেশ উরাং। মামলায় সাংবাদিক আশফাকুল ও তার স্ত্রী তানিয়া খন্দকারকে আসামী করা হয়।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন