বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

টুঙ্গিপাড়া পাটগাতি ইউনিয়নের ভূমি খেক জাফরের কু-নজরে সব হারাতে বসেছি -আলাউদ্দিন শেখ

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

 

গোপালগঞ্জ জেলার বেশিরভাগ ভূমি অফিসগুলোতে চলছে টাকার খেলা কখনো আশ্রয়ণ প্রকল্প নিয়ে, কখনো সরকারি বন্দোবস্তের জমি নিয়ে, কখনো একজনের জায়গা আর এক জনের নামে নামজারি করে টাকা হাতিয়ে নেওয়া, এক কথায় ভূমি অফিসে যে কোন কাজে গেলে আগে টাকা। অন্যদিকে ভূমি কর্মকর্তাদের পালিত দালালদের পার হয়ে যাওয়াটা খুব কষ্টকর, কোন এক ইউনিয়ন ভূমি আফিস তহশিলদারের বন্ধু পরিচয়ে নির্ভয়ে দালালি করে বেড়াচ্ছে। কেউ ভূমি অফিসের দূর্নীতির ব্যপারে প্রতিবাদ করলে এই দালালেরা এলাকার প্রভাব শালীদের দিয়ে প্রতিবাদ করদের হুমকী ধামকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়। দালালদের মাধ্যমেই সেটিং করা হয় দরিদরবার, পাটগাতি ইউনিয়ন ভূমি অফিস এর বাইরে নয়। গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার গিমাডাঙ্গা গ্রামের মো. মুক্ত শেখের ছেলে মো. আলাউদ্দিন শেখ ও মোছা. সালেহা বেগম সরকারের কাছ থেকে বন্দোবস্ত নিয়ে বড় সিঙ্গা মৌজার জেএল নং- ১৬, খতিয়ান নং- ১৭৬৮ এর ১ একর ৭৫ শতাংশ কৃষি ৫(ক)নাল জমি ৩০ বছর যাবৎ ভোগ দখল করে আসছেন। আলাউদ্দিন শেখের নামে এই জমি নামজারি করা হয়েছিল ১৬/১১/২০২১ইং তারিখে।
গরীব অসহায় আলাউদ্দিন শেখের এই জমিটুকু নজরে পড়ে একই এলাকার ভূমিদস্যু আনোয়র শেখের । সে বহুদিন যাবৎ এই জমি নিয়ে তার সাথে বিভেধ সৃস্টি করে বেড়াচ্ছে। আনোয়ায় শেখ কখনো জোর করে তার জমির ধান কেটে নিয়ে যাচ্ছে কখনো পুকুরের মাছ ধরে নিয়ে যাচ্ছে সবটুকুই করছে জোর করে।
এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী মো. আলাউদ্দিন শেখ গণমাধ্যম কর্মীদের বলেন, পাটগাতি ইউনিয়ন ভূমি অফিসের তহশিলদার আমার জমি আমারি থাকবে বলে আশ্বাস দিলেও তলেতলে আনোয়ার শেখের সাথে হাত মিলিয়ে আমাকে ক্ষতিগ্রস্ত করার চেস্টা করছে। আমাকে কয়েকদিন ঘুরিয়ে এখন বলছে পুরাতন কাগজ-পাতি দেখার সময় নাই। যা করার এসিল্যান্ড করবে আমি রিপোর্ট দিয়ে দিয়েছি। তহশিলদার সবসময় আমাকে আশ্বাস দিয়ে এখন কেন আমার উলটো দিকে চলছে তার কোন কারণ আমি খুজে পাই নাই। এব্যপারে আমি বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা মমতাময়ী মা জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃস্টি আকর্ষন করছি। সেই সাথে আমি ভূমি সংক্রান্ত সকল কর্মকর্তাদের সুনজর কামনা করছি।
গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার পাটগাতি ইউনিয়ন ভূমি আফিস সহ সকল ভূমি অফিস সমুহের সকল কর্মকর্তাদের ওপর নজরদারি একান্ত প্রয়োজন। এ ব্যপারে ভূমি সংশ্লিষ্ট উপরোক্ত সকল কর্মকর্তাদের দৃস্টি আকর্ষন করছি।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন