সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

টুঙ্গিপাড়ার বর্নি জমি জমার জেরে প্রতিবেশীর হামলায় গুরুতর আহত-৩

মোঃ তপু শেখ গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

 

গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বর্নি ইউনিয়নের মুন্সী বাড়ি এলাকায় গতকাল সময় আনুমানিক সকাল ১১টার সময় ইমাম মুন্সী ও তার পরিবারের উপর জমিজমার জেরে এই হামলা হয়।
সরেজমিনে গেলে জানা যায়, মনির মুন্সির লোকজন দীর্ঘ্য দিন যাবৎ ইমাম মন্সী ও তার পরিবারের উপর এই জমি নিয়ে বিরোধ করে আসছিল। বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক ১২ টার দিকে তার লোকজন ও ছেলে মঈন মুন্সিকে সঙ্গে নিয়ে হামলা করেন। হামলায় ইমাম মুন্সির স্ত্রী নাসরিন বেগম, মেয়ে হাফছার খানম ও মরিয়াম বেগম গুরুতর আহত হয়। আহতবস্থায় তাদেরকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপোতালে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যপারে একই এলাকার প্রত্যক্ষদর্শী আবেজান বেগম বলেন, এই জায়গার প্রকৃত মালিক ইমাম মুন্সী, মনির মন্সী ক্ষমতার জোরে এই জায়গায় বেড়া দেয় প্রতিদিন। গোন্ডগোলের দিন মনির মুন্সী ও তার ছেড়ে মঈন মুন্সী ও তাদের দলের লোকজনদের নিয়ে এসে ইমাম মুন্সী বৌ ও মেয়েদেরকে মারধর করে এবং তার মেয়ে হাফসার হাতে ভেঙ্গে ফেলে। আমরা বলছি, ওরা জানতে পারলে আমাদেরকেও মারবে।
আব্দুর রহমান শেখ নামক আরো এক ব্যক্তি বলেন, এই জায়গার মালিক ইমাম মুন্সী তার স্ত্রী এই জায়গাটা জনগণের হাঁটার জন্য ওরা সরকারকে রাস্তা করতে দিয়েছে, সেই রাস্তার মুখে ওরা বেড়া দিয়েছে। ইমাম মুন্সির মেয়েরা তা খুলতে আসলে মনির মুন্সী, ছেলে মঈন মুন্সী ও তার লোকজন তাদের উপর হামলা করে গুরুতর আহত করে।
গ্রামবাসীরা বলেন ওরা প্রত্যেকদিন ক্ষমতার জেরে গোন্ডগোল করে যে ঠেকাতে আছে তাদেরকেও মারে। মনিরের ছেলে আরো উচ্ছৃঙ্খল ওদের ভয়ে কেউ কথা বলেনো। ওরা মনির মুন্সির মেয়ে মরিয়াম কে প্রচণ্ড মারধর করেছে, আফসারাকে মেরে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে।

এ ব্যপারে টুঙ্গিপাড়া থানায় মরিয়াম বেগম বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে টুঙ্গিপাড়া থানা এস,আই বদিউর ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন। তিনি বলেন এ ব্যপারে মামলার প্রস্ততি চলছে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন