সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

টিউবওয়েলের পানিতে চেতনানাশক মিশিয়েছে দূর্বৃত্তরা দেবীগঞ্জ আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ১২ জন

পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি

 

 

পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে একদিনের ব্যবধানে ৩ টি পরিবারের খাবার পানি ও লবনে চেতনানাশক প্রয়োগ করায় অন্তত ১২ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। একই সময়ে প্রতিটি বাড়ী থেকে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার চুরি হয়েছে

 

গত মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) দিবাগত রাতে উপজেলার দেবীডুবা ইউনিয়নের দারারহাট এলাকার জ্যোতিষ চন্দ্র রায় ও অধিকারী পাড়ার কবাদ আলীর বাড়ীতে চেতনানাশক প্রয়োগ করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন ভুক্তভোগী পরিবারগুলো।

তাঁরা বলছেন, তাদের টিউবওয়েলের পানিতে চেতনানাশক জাতীয় কিছু মিশিয়েছে দূর্বৃত্তরা। এবং ঐদিন রাতে তাদের বাড়ী থেকে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় পৃথকভাবে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন তাঁরা। এছাড়াও চেতনানাশকের প্রভাবে অসুস্থ হয়ে দেবীগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১২ জন।

ভুক্তভোগী ও স্থানীয়রা জানায়, ঘটনার দিন (মঙ্গলবার) খাবার খেয়ে পরিবারসহ ঘুমিয়ে পড়েছিলেন জ্যোতিষ চন্দ্র রায়। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখেন তার ঘরের বিছানাপত্র এলোমেলো। তিনি বুঝতে পারেন তাঁর বাড়ীতে ওয়ারড্রব ভেঙে নগদ ৩৬ হাজার টাকা ও ৫০ হাজার টাকা মূল্যের কানের দুল চুরি হয়েছে। পরে তিনি অসুস্থ বোধ করায় তার স্ত্রী ও সন্তানসহ হাসপাতালে ভর্তি হন।

একই দিনে কবাদ আলীর বাড়ীতে ঘর তৈরীর কাজ করছিলেন একই এলাকার রাজমিস্ত্রি রবিন, অলক, তাপস, জীবন, সমোনি ও প্লাবনসহ ৬ জন। তাঁরা কবাদ আলীর বাড়ীতে দুপুরে খাবার খেয়ে ঘুম বোধ করায় প্রত্যেকে সেদিনের মতো বাড়ী চলে যায় এবং ঘুমিয়ে পড়ে। বাড়ীর মালিক কবাদ আলী দুপুরে বাড়ীতে ছিলেন না

 

রাত সাড়ে এগারোটায় তিনি বাড়ীতে এসে ঘর এলোমেলো দেখে বুঝতে পারেন তার বাড়ীতে চুরি হয়েছে। এসময় নগদ ১৩ হাজার টাকা ও ৭ হাজার মূল্যের নুপুর চুরি হয়েছে বলে জানান তিনি। পরে অসুস্থ বোধ করায় বুধবার তার স্ত্রী ও সন্তানকে হাসপাতালে ভর্তি করান। একইদিন ঐ ৬ মিস্ত্রি অসুস্থ বোধ করায় তারাও হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন।

উপরোক্ত দুটি ঘটনার একদিন পরেই বুধবার দিবাগত রাতে একই ইউনিয়নের ভাউলপাড়া এলাকায় জগেশ চন্দ্র রায়ের বাড়ীতে চেতনানাশক প্রয়োগের অভিযোগ উঠে।

ভুক্তভোগী জগেশ চন্দ্র রায় জানায়, তার রান্নাঘরে থাকা লবনের পাত্র অজ্ঞাতনামা কেউ পরিবর্তন করে চেতনানাশক মিশ্রিত লবনের পাত্র রেখেছেন। এ লবন দিয়ে রান্না করা খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়লে ঐ রাতেই তার বাড়ীর নগদ ২৪ হাজার টাকা ও ৪০ হাজার মূল্যের কানের দুল চুরি হয়। বৃহস্পতিবার সকালে বিষয়টি বুঝতে পারেন তাঁরা।

জানতে চাইলে দেবীগঞ্জ সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক আবু নোমান বলেন, “লক্ষন দেখে মনে হয়েছে তারা চেতনানাশক জাতীয় কোন কিছুর প্রভাবে অসুস্থ হয়েছেন। তবে পরীক্ষা ছাড়া নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছেনা। একদিন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে তারা বাড়ী ফিরে গেছেন”।

দেবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ইফতেখারুল মোকাদ্দেম বলেন, দুটি বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন