শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪

জুড়ীতে অসহায় মানুষের পাশে থাকা এক মানবতার ফেরিওয়ালা পর্তুগাল প্রবাসী মাহবুব হাসান সাচ্চু

মোঃ জাকির হোসেন স্টাফ রিপোর্টের

 

 

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার গোয়ালবাড়ী ইউনিয়নের কৃতি সন্তান রত্না চা বাগান প্রভাতী ক্রীড়া চক্র ফুটবল ক্লাব এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও রত্না যৌথ আর্থিক ফাউন্ডেশনের সিনিয়র উপদেষ্টা পর্তুগাল প্রবাসী ক্রীড়াবিদ মাহবুব হাসান সাচ্চু।

এছাড়াও পর্তুগাল প্রবাসী মাহবুব হাসান সাচ্চু জুড়ীর ক্রিকেট ও ফুটবল খেলাকে খেলাধুলায় অবদান রাখার মাধ্যমে জুড়ীর সকল সামর্থবান প্রবাসীদের এলাকার যুবসমাজের উন্নয়নে একসাথে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন।

প্রবাসে থেকেও দেশের গরীব অসহায় মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন পর্তুগাল প্রবাসী মাহবুব হাসান সাচ্চু, তিনি সব সময় দেশের মানুষের খোজঁখবর রাখাসহ এলাকাবাসীদের যাবতীয় বিপদে আপদে তাদের সাহায্য সহযোগিতা করে থাকেন।

পর্তুগাল প্রবাসী মাহবুব হাসান সাচ্চুর এলাকায় গিয়ে জানা যায় মাহবুব হাসান সাচ্চুর জন্ম ১৯৮৫ সালে জুড়ী উপজেলার গোয়ালবাড়ী ইউনিয়নের রত্না চা বাগান এলাকায় জন্ম গ্রহন করেন। মাহবুব হাসান সাচ্চুর পিতার নাম মৃত জুনাব আলী , মাহবুব হাসান সাচ্চু জুড়ী তৈবুনেছা খানম সরকারি ডিগ্রি কলেজ লেখাপড়া শেষ করেন ২০০৫ সালে পরে তিনি ১০ বছর খেলাধুলার মনোযোগ দেন পরে ২০১৬ সালে পর্তুগাল পাড়িজমান। দীর্ঘদিন প্রবাসে ছিলেন মাঝেমধ্যে দুই এক মাসের জন্য দেশে আসেন।

পরিশ্রমী, নিষ্ঠাবান ও পারিবারিক সাপোর্ট এর কারনে তিনি এখন উন্নতির শীর্ষে অবস্থান করেছেন। পর্তুগাল প্রবাসী মাহবুব হাসান সাচ্চু এক সন্তানের জনক। মাহবুব হাসান সাচ্চুর পাঁচজন ভাইদের মধ্যে চার নম্বর তিনি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মাদ্রাসা ও মসজিদে ও মন্দির ও খেলাধুলায় আর্থিক সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।

স্থানীয় এলাকার বাসিন্দারা জানান প্রভাতী ক্রীড়া চক্র ফুটবল ক্লাব এর সাধারণ সম্পাদক সুমন রায় শিশু, রত্না চা বাগানের সাবেক পঞ্চায়েত সভাপতি বিকাশ রুদ্র পাল,ও মুক্তার ঘোষ, সাবেক পঞ্চায়েত সভাপতি সুশীল চন্দ্র ঘোষ, জুড়ী উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রুবেল খাঁন ওনারা বলেন গত ২০২৩ সালের (১০ জানুয়ারিতে রত্না চা বাগান ৩০০ শ্রমিকের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে৷ আরো জানান, যেকোনো মানুষের বিপদে–আপদে ঝাঁপিয়ে পড়েন সবার আগে। অনেক অসহায় মানুষের আস্থার শেষ ঠিকানা পর্তুগাল প্রবাসী মাহবুব হাসান সাচ্চু এলাকার অসহায় গরিব মানুষের ক্যানসার, ব্রেন টিউমার, প্যারালাইসিস ও দুর্ঘটনায় বড় ধরনের কোনো ক্ষতি হলে তাদের জন্য অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করেন এবং এসব মানুষকে নিয়ে যান। পর্তুগাল প্রবাসী মাহবুব হাসান সাচ্চুর এই মহৎ কাজের জন্য রত্না চা বাগানের এলাকাবাসী কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

পর্তুগাল প্রবাসী মাহবুব হাসান সাচ্চু প্রতিবেদককে জানান, দান, যাকাত ডান হাতদিয়ে দিলে বাম হাত জানবেনা। আমিও ঠিক তেমনি অতি গোপনে বাংলাদেশের অসহায় গরীব মানুষকে যতটুকু সম্ভব সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছি। আমি দেশে ফিরে অসহায় গরীব মানুষদের পাশে থেকে বাকি জীবনটা কাটিয়ে দিতে চাই।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন