সোমবার, ২০ মে ২০২৪

গোপালগঞ্জের ফেসবুকে মিথ্যা, বানোয়াট তথ্যা অপঃপ্রচারের প্রতিবাদে টুঙ্গিপাড়ায় আসলাম শেখের সংবাদ সম্মেলন

মোঃতপু শেখ
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ডুমুরিয়া ইউনিয়নের ঝনঝরিয়া গ্রমের ব্যবসায়ী আসলাম শেখের নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইউটিউব এ ভূয়া বানোয়াট ও মিথ্যা তথ্য প্রকাশের প্রতিবাদে তারই আপন ভাই দবির শেখের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী আসলাম শেখ।
সংবাদ সম্মেলনে আসলাম শেখ বলেন, গত কিছুদিন পূর্বে আমার নামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউব ও হোয়াটসঅ্যাপ এর মাধ্যমে মিথ্যা ভুয়া বানোয়াট অভিযোগের জোর প্রতিবাদ যানাচ্ছি। আপনারা সবাই অবগত আছেন যে, আমি পূর্বে সেনাবাহীনিতে কর্মরত ছিলাম। বর্তমানে সেনাবাহীনি থেকে অবসরের পর ২০০৬ থেকে আমি গার্মেন্টস ব্যবসার সাথে জড়িত এবং ঢাকাস্থ মিতালি মার্কেটের ব্যবসায়ি সমিতির সভাপতি হিসাবে দীর্ঘদিন যাবৎ দায়িত্ব পালন করে আসিতেছি। বর্তমানে আমি স্থানিয় রাজনীতির সাথে জাড়িত। বর্তমানে আমি ০৫ নং ডুমুরিয়া ইউনিয়নের সিনিয়ার সহ-সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করিয়া আসিতেছি। আমার গার্মেন্টস ব্যবসায় উন্নতি হওয়াতে স্থানিয় কিছু দুষ্কৃতি কারী যাহা মেনেনিতে পারিতেছেনা। তাই আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছে। কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাড়াটিয়া লোক দিয়ে ভুয়া অপপ্রচার করিতেছে যাহাতে আমার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়।

০৩/২৯/২০২৪ ইং তারিখ বিকাল ৪.২১ ঘটিকার সময় ওরা আমার বাড়ির কিছু ছবি মোবাইলে ধারন করে। এ দিয়ে কিছু ভিডিও বানিয়ে পরবর্তীতে ০১৮১৮৬১৯২৬৭ নম্বার দিয়ে একটি ভিডিও আপলোড করেন। পরবর্তীতে জানতে পারী এই নম্বারটি আমার আপন বড় ভাই এস.এম দবির হোসেন। তাহার কাছে এই বিষয়ে জানতে ফোন করিলে সে আমার ফোন রিসিভ করেন নাই। আপনারা আরো অবগত আছেন গত ১৫/০৩/২০২৪ আমার আম্মা মৃত্যু বরন করেন। মৃত্যু বরন করার পরে পৈতৃক/ক্রয়কৃত সম্পত্তি ভাগাভাগির সূত্র ধরে সে এই অপপ্রচারে লিপ্ত হয়। যে লোকের মাধ্যমে এই মিথ্যা অপপ্রচারটি করেছেন সে আমাদের এলাকার বাসিন্দা নয়। আমি আমার বড় ভাই মোস্তফাকামাল এর কাছ থেকে ক্রয় করি ২৬ শতাংশ, মোঃ হাবিবুর রহমানের কাছ থেকে ক্রয় করি ৭৮ শতাংশ, এস.এম দবির হোসেন এর কাছ থেকে ক্রয় করি ১০৪ শতাংশ, মোঃ শফিকুল ইসলামের
কাছ থেকে ক্রয় করি ১২১ শতাংশ, মোঃ মফিকুল ইসলামের কাছ থেকে ক্রয় করি ৬৫ শতাংশ, আমার আম্মার ২৬ শতাংশ, আমার বড় বোন আলেয়া বেগম এর কাছ থেকে ক্রয় করি ১৩ শতাংশ জমি ও আরো কিছু জমি বাবুল, স্বপ্না, মফিজুরগং এর কাছ থেকে ক্রয় করি এটার বিরুদ্ধে ও সড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। এই জমি আমার অনুকুলে নিতে চাইলে তখনি তাহাদের সাথে আমার বিরোধ বাঁধে। এক পর্যায়ে তারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচারে লিপ্ত হয়। যাহারা এই অপপ্রচারের সাথে জড়িত তাহাদের বিরুদ্ধে আমি আইন মোতাবেক বিচারে দাবি যানাচ্ছি। বিশ্বস্ত সূত্রে যানতে পারি যে এরা আমাকে ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনির দ্বারা মেরে ফেলার জন্য সড়যন্ত্র চালিযে যাচ্ছে এবং প্রকাশেও হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। পরবর্তীতে আমার কোন দূরর্ঘটনা ঘটলে ও আমার কোনো প্রকার ক্ষতি সাধন হলে এরাই দায়ি থাকিবে। প্রিয় সাংবাদিক ভাই আপনাদের মাধ্যমে দেশবাশি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে এই বিষয়ে বিচারের দাবি যানাচ্ছি।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন