সোমবার, ২০ মে ২০২৪

গলাকাটা হত্যার মূল রহস্য উদঘাটন, হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ০১ (এক) টি রক্তমাখা ধারালো কাস্তেসহ হত্যাকান্ডে সরাসরি জড়িত ০১ জন গ্রেফতার

মোঃ তৌহিদ হাসান বগুড়া জেলা প্রতিনিধি

 

গত ১৮/০৪/২০২৪ খ্রি. তারিখ সময় অনুমান সকাল ০৯.৩০ ঘটিকার সময় বগুড়া জেলার সদর থানাধীন শশীবদনী হিন্দুপাড়া গ্রামে আসামী সুকুমারের বাড়ির উত্তর দুয়ারী শয়ন ঘরের মেঝেতে বন্ধন নামের এক শিশুকে লোহার তৈরি ধারালো কাস্তে দ্বারা গলাকেটে গুরুত্বর রক্তাত্ত জখম করা হয়েছে। বিষয়টি উর্দ্ধতন কতৃপক্ষ অবহিত হলে বগুড়া জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী বিপিএম, পিপিএম (অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত) মহোদয়ের সার্বিক দিক নির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) জনাব মোঃ শরাফত ইসলাম এর তত্তাবধানে অফিসার ইনচার্জ বগুড়া সদর থানা মোঃ সাইহান ওলিউল্লাহ এর নেতৃতে টিম নিখুঁত গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ইং ১৮/০৪/২০২৪ খ্রি. তারিখ সময় অনুমান ১২.০৫ ঘটিকার সময় বগুড়া জেলার সদর থানাধীন শশীবদনী হিন্দুপাড়া গ্রামে আসামী সুকুমারের বসত বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে চাঞ্চ্যল্যকর শিশু বন্ধন (০৬ বছর ০৬ মাস) এর গলাকেটে হত্যার মূল রহস্য উদঘাটন, হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ০১ (এক) টি রক্তমাখা ধারালো কাস্তেসহ হত্যাকান্ডে সরাসরি জড়িত ০১ জন আসামীকে গ্রেফতার করা হয়।

আটককৃত আসামীর নাম ও ঠিকানাঃ

১। শ্রী সুকুমার দাস (২৫), পিতা-মৃত ঝুমুর দাস, মাতা-শ্রীমতি গীতা রানী, সাং-শশীবদনী (হিন্দুপাড়া), থানা ও জেলা-বগুড়া।

উদ্ধারকৃত আলামতঃ

১। ০১(এক) টি রক্তমাখা লোহার তৈরি ধারালো কাস্তে (যা হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত)।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামী জানায় যে, ডিসিস্ট বন্ধন এর মা সম্পর্কে আসামীর আপন ভাগ্নি হয়। ইতিপূর্বে তাদের মধ্যে পারিবারিক বিষয়ে দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৬/০৪/২০২৪ খ্রি. তারিখ ডিসিস্ট বন্ধন এর মা ডিসিস্ট বন্ধন ও তার মেয়েকে নিয়ে আসামীর বাড়িতে বেড়াতে আসে। তখন হতেই আসামী তার ভাগ্নিকে শায়েস্তা করার জন্য পরিকল্পনা করিতে থাকে। একপর্যায়ে ইং ১৮/০৪/২০২৪ তারিখ সময় অনুমান সকাল ০৯.৩০ ঘটিকার সময় বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে আসামী তার পূর্বপরিকল্পনা মোতাবেক তার নিজ শয়ন কক্ষের মধ্যে কৌশলে ডিসিস্ট বন্ধনকে ডেকে নিয়ে গিয়ে পূর্বে হতেই ঘরের মধ্যে লুকিয়ে রাখা লোহার তৈরি ধারালো কাস্তে দ্বারা হত্যার উদ্দেশ্যে গলাকেটে রক্তাক্ত জখম করে। পরবর্তীতে ডিসিস্ট বন্ধন এর চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হইয়া ডিসিস্ট বন্ধনকে উদ্ধার করিয়া অজ্ঞাতনামা ইজিবাইক যোগে চিকিৎসার জন্য শজিমেক হাসপাতাল, বগুড়ায় নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডিসিস্ট বন্ধনকে মৃত ঘোষণা করে।

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন