সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

কমলগঞ্জে বিনামূল্যে ২ হাজার রোগীকে চক্ষু চিকিৎসা প্রদান

মো.সাইদুল ইসলাম,মৌলভীবাজার

 

 

প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলায় মবশ্বির আলী চৌধুরী কল্যান ট্রাষ্টের উদ্যোগে ও মবশ্বির আলী চৌধুরী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের আয়োজনে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (৪ মার্চ) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত মবশ্বির আলী চৌধুরী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের আয়োজনে বিএনএসবি মৌলভীবাজার চক্ষু হাসপাতালের চিকিৎসা সেবায় এ চক্ষু শিবির অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রায় ২ হাজার রোগীকে এ সেবা প্রদান করা হয়েছে। এ সময় ৮০ জন বাছাইকৃত ছানিপড়া রোগীকে বিনামূল্যে অপারেশনের জন্য মৌলভীবাজার বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতালে পাঠানো হয়। এছাড়া প্রায় ১হাজার জন রোগীকে বিনামূল্যে চশমা ও ঔষধ প্রদান করা হয়।

 

মবশ্বির আলী চৌধুরী কল্যান ট্রাষ্টের ও মবশ্বির আলী চৌধুরী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা নুরুজ্জামান চৌধুরী রাসেল এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান, কমলগঞ্জ পৌর মেয়র মো. জুয়েল আহমেদ, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল, আলীনগর ইউপি চেয়ারম্যান নিয়াজ মুর্শের রাজু, ইউপি সদস্য তুফাজ্জল করীম চৌধুরী শ্যামল, ব্যবসায়ী রাসেল হাসান বখত, মবশ্বির আলী চৌধুরী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিশিষ্ট লেখক গবেষক আহমদ সিরাজ, কমলগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সমেরেন্দু সেনগুপ্ত বুলবুল, সমাজ সেবক সোহেল চৌধুরী, মুহিবুল ইসলাম চৌধুরী, ইক্তিয়ার চৌধুরী, মুক্তার চৌধুরী, শাহীন চৌধুরী প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মবশ্বির আলী চৌধুরী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. মশিউর রহমান চৌধুরী, শিক্ষক মোমিনা ইয়াসমিন রুজি, হামিদা চৌধুরী, সুমাইয়া চৌধুরী, তারিন সুলতানা, মনিরাজ সিনহা, নিপুণ শর্মা, শম্পা রাণী শীল। এবং সেচ্ছাসেবক হিসেবে উক্ত বিদ্যালয়ের ছাত্ররা দায়িত্ব পালন করে।

চক্ষু শিবিরে সেবা প্রদান করেন মৌলভীবাজার চক্ষু হাসপাতালের ডা. ইফফাত জাহান তানিয়া, অঞ্জন রায় দেবনাথ, দেওয়ান রুহুল আমীন চৌধুরী, মোজাহের হোসেন, শুকুর মোহাম্মদ,মেহেদী হাসান, সুমন আহমেদ।

 

বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা নুরুজ্জামান চৌধুরী রাসেল বলেন, ‘আমরা গত বছর থেকে বিনা মূল্যে মানুষদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছি। আজ প্রায় দুই হাজার মানুষকে চিকিৎসা সেবা দিয়েছি। তাছাড়া আমাদের স্কুলটা শুরু হওয়ার পর থেকে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনা মূল্যে স্কুল ড্রেসসহ সব কিছু বহন করছি। আগামীতে তা অব্যাহত থাকবে

থেকে আরও পড়ুন

থেকে আরও পড়ুন